1. mistupoddar056@gmail.com : Bangla : Bangla
  2. admin@jatiyokhobor.com : jatiyokhobor :
  3. suhagranalive@gmail.com : Suhag Rana : Suhag Rana
রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ১২:০৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ধন্যবাদ জানাই  গুগলকে আমাদের প্রচেষ্টাকে সম্মান করার জন্য পৃথিবীর অভ্যন্তরীণ গতিবিধি থেকে নতুন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বিজ্ঞানিরা করোনার ভ্যাকসিনের বিশ্বব্যাপী বিতরণ শুরু দ্রুত ভ্রমণের জন্য মহাকাশে হাই বে পথও আছে ভিটামিন ডি করোনার মৃত্যুর ঝুঁকি হ্রাস করে গবেষণায় জানা গেছে জীবনের অনেক চিহ্ন এখনও মঙ্গল গ্রহের পরিবেশে বিদ্যমান অক্সিজেনের সাহায্যে বয়সকে মাত দিতে চলেছেন বিজ্ঞানিরা এর ডানার বিস্তার ছিল বিশ ফুট ছিলো প্রাগতৈহাসিক যুগে গুরু এবং শনি একে অপরের নিকটে আসছে হত্যা চেষ্টা মামলার আসামী নিশির সাথে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সেক্রেটারি লেখকের অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ রাশিয়ান বিজ্ঞানী কে হত্যা করা হয়েছে করোনার ভ্যাকসিনের সাথে যুক্ত ছিলেন গুদামে সরবরাহিত চিনি জেলা প্রশাসক অফিসে জানানো হবে মানসিক হয়রানি তদন্ত এবং দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া ভারতীয় সেনাবাহিনীর ইউনিফর্ম পরিবর্তন করা হবে চিকিত্সার অভাবে মারা গেল লাপুংয়ের কেওয়াত টালির দরিদ্র শ্রমিক

বিহারের সিনিয়র মোস্ট কংগ্রেস বিধায়ক সদানন্দ সিং এবার নির্বাচনে দাড়াবেন না

Reporter Name
  • পোষ্ট করেছে : Tuesday, 1 September, 2020
  • ৫০ জন দেখেছেন
বিহারের সিনিয়র মোস্ট কংগ্রেস বিধায়ক সদানন্দ সিং এবার নির্বাচনে দাড়াবেন না
  • নিজের আসনে নিজের ছেলেকে দাড় করাতে চান তিনি

  • নীতীশ এবং লালু সম্পর্কে অনেক নতুন তথ্য দিয়েছেন

  • সৃজন কেলেঙ্কারিতে জড়িত আছেন বড় নেতারা

দীপক নওরঙ্গি

ভাগলপুর: বিহারের সিনিয়র মোস্ট কংগ্রেস এমএলএ সদানন্দ সিং আর ইলেক্শানে দাড়াতে

চান না। তিনি রাষ্ট্রীয় খবর এর সাথে এক বিশেষ ইন্টারভিউ দিতে দিতে এই কথা ঘোষণা

করলেন। তিনি গত নয় বার ক্রমাগত ভাবে কহলগাঁও বিধানসভা নির্বাচনে জয় লাভ করে

কংগ্রেস ছাড়া অন্য সব দলের জন্য একটি বিরাট রেকর্ড করেছেন। তিনি ছাড়া সারা বিহারে

আর কেই ক্রমাগত ভাবে এতবার নির্বাচন জিততে পারে নি।

ভিডিওতে তার পূর্ণ সাক্ষাত্কারটি দেখুন

শ্রী সিং বলেছেন যে এখন তার এপর বয়সের প্রভাব পড়েছে। বিধায়ক হিসাবে প্রয়োজনীয়

পরিমাণে সক্রিয়তা আর নেই। সুতরাং, তিনি চান না যে কহলগাঁয়ের লোকেরা যে সক্রিয়

বিধায়ক কে এখনও অবধি দেখেছেন, তারা হতাশ হন। তবে তিনি বলেছিলেন যে নিজের

আসনে ছেলে শুভানন্দ মুকেশকে এগিয়ে আনতে চান। তিনি আরও স্পষ্ট করে জানিয়েছেন যে

তিনি চাইতেন না যে তার ছেলে রাজনীতিতে আসুক। তবে উচ্চশিক্ষা অর্জনের পরেও তাঁর পুত্র

শেষ পর্যন্ত রাজনীতিতে সক্রিয় হয়ে ওঠেন। সে কারণেই তিনি চান তাঁর পুত্র এই আসনে তার

বদলে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। বিধায়ক সদানন্দ সিং ২০০২ থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত

বিধানসভার স্পিকারও ছিলেন। তাঁর রাজনৈতিক জীবন সম্পর্কে তিনি বলেছিলেন যে তিনি

গত ৫২ বছর ধরে কংগ্রেস দলের অনুগত সৈনিক হিসাবে রয়েছেন। এই দৃষ্টিকোণ থেকে অনুমান

করা যায় যে বর্তমানে তিনি বিহার কংগ্রেসেরও সবচেয়ে শক্তিশালী নেতা। কহালগাঁও

বিধানসভা থেকে পরপর নয় বার বিধায়ক হওয়া তার কৃতিত্বের সাক্ষ্য দেয়।

বিহারের সিনিয়র নেতা অনেক নতুন তথ্য প্রকাশ করেছেন

এই আলোচনার ধারাবাহিকতায়, মিঃ সিং প্রথমবারের মতো এমন কিছু তথ্যও দিয়েছিলেন, যা

আজকের আগে কখনও জনসমক্ষে আলোচনায় আসে নি। তিনি বলেছিলেন যে দীর্ঘকাল আগে,

যুবক নীতীশ কুমারের শক্তি এবং স্টাইল দ্বারা প্রভাবিত হয়ে তিনি কিছু নেতাদের নীতীশ

কুমারকে অনুসরণ করার জন্য সুপারিশ করেছিলেন কারণ তিনি মনে করেন যে এই তরুণ

নেতার প্রতি যে উত্সাহ রয়েছে, তিনি বিহারের পক্ষে কাজে আসতে পারে। এই ছাড়াও তিনি

বলেছিলেন যে স্পিকার থাকাকালীন তিনি লালু প্রসাদের বিরুদ্ধে চারা কেলেঙ্কারির তদন্তের

সুপারিশ করার অনুমতিও দিয়েছিলেন। সাধারণত, এই উভয় জিনিস আগে কখনও খুব বেশি

আলোচনা করা হয়নি।

সৃজন কেলেঙ্কারিতে জড়িত বড় নেতারা

অন্য প্রশ্নের জবাবে তিনি স্বীকার করেছেন যে সিবিআইয়ের কাজকর্ম থেকে এটা স্পষ্ট যে

ভাগলপুরে সৃজন কেলেঙ্কারীতে বড় নেতারা জড়িত রয়েছেন। মিডিয়াতে এ নিয়ে ইতিমধ্যে

অনেক কিছু এসে গেছে। নাম না নেওয়ার পরেও কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া

সিবিআইকে সন্দেহের আওতায় নিয়ে আসে। মিঃ সিং বলেছেন, সাধারণত সিবিআই তার স্তরে

গৃহীত পদক্ষেপের তথ্য জনসাধারণকে প্রকাশ করে। তবে এই কেলেঙ্কারিতে এ জাতীয় কিছুই

ঘটছে না। এতে সন্দেহ আরও বেড়ে যায় যে বড় নেতারা অবশ্যই এতে জড়িত ছিলেন, যাদের

সম্পর্কে ইতিমধ্যে জনসাধারণের কাছে অনেক তথ্য জানা গেছে।

অন্য প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেছিলেন যে তিনি কংগ্রেসের জেলা সভাপতির পরিবর্তনের সুপারিশ

করেছিলেন। এটি কিছু লোককে রেগে যেতে পারে, তবে দলকে শক্তিশালী করার সিদ্ধান্ত নেওয়া

হয়েছিল। সংস্থার শক্তির জন্য বর্তমান জেলাধ্যক্ষর কাছে থেকে তাঁর উচ্চ প্রত্যাশা রয়েছে,

যদিও সাবেক জেলা প্রেসিডেন্ট ভালো মানুষ হওয়ার পরেও সংগঠনটিকে গতি দিতে পারেননি।

[subscribe2]

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ব্রেকিং নিউজ
Bengali English Hindi