1. mistupoddar056@gmail.com : Bangla : Bangla
  2. admin@jatiyokhobor.com : jatiyokhobor :
  3. suhagranalive@gmail.com : Suhag Rana : Suhag Rana
রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ১১:১৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ধন্যবাদ জানাই  গুগলকে আমাদের প্রচেষ্টাকে সম্মান করার জন্য পৃথিবীর অভ্যন্তরীণ গতিবিধি থেকে নতুন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বিজ্ঞানিরা করোনার ভ্যাকসিনের বিশ্বব্যাপী বিতরণ শুরু দ্রুত ভ্রমণের জন্য মহাকাশে হাই বে পথও আছে ভিটামিন ডি করোনার মৃত্যুর ঝুঁকি হ্রাস করে গবেষণায় জানা গেছে জীবনের অনেক চিহ্ন এখনও মঙ্গল গ্রহের পরিবেশে বিদ্যমান অক্সিজেনের সাহায্যে বয়সকে মাত দিতে চলেছেন বিজ্ঞানিরা এর ডানার বিস্তার ছিল বিশ ফুট ছিলো প্রাগতৈহাসিক যুগে গুরু এবং শনি একে অপরের নিকটে আসছে হত্যা চেষ্টা মামলার আসামী নিশির সাথে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সেক্রেটারি লেখকের অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ রাশিয়ান বিজ্ঞানী কে হত্যা করা হয়েছে করোনার ভ্যাকসিনের সাথে যুক্ত ছিলেন গুদামে সরবরাহিত চিনি জেলা প্রশাসক অফিসে জানানো হবে মানসিক হয়রানি তদন্ত এবং দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া ভারতীয় সেনাবাহিনীর ইউনিফর্ম পরিবর্তন করা হবে চিকিত্সার অভাবে মারা গেল লাপুংয়ের কেওয়াত টালির দরিদ্র শ্রমিক

পরিবেশ অবক্ষয়ের খেসারত দিতে তৈরি থাকূন এবার

Reporter Name
  • পোষ্ট করেছে : Wednesday, 4 December, 2019
  • ১৭৫ জন দেখেছেন
  • চলতি বছরে ভারতে অপ্রচলিত বৃষ্টিপাতের ঘটনা
  • বর্ষাও আসার সময় পাল্টে যেতে শুরু হয়েছে
  • মহানগর ও গ্রামীণ অঞ্চলে একই প্রভাব
  • ভূগর্ভস্থ জল হ্রাসের বিপদ বেড়েছে
প্রতিনিধি

নয়াদিল্লি: পরিবেশ নিয়ে হৈচৈ করা ছেড়ে এবার সেটা বাঁচাবার সময়

দোরগড়ায় এসে গেছে। এই গোলমাল বোধহয় সীমা ছাড়িয়েছে তাই এখন

প্রকৃতিও তার দৃষ্টিভঙ্গি বদলাচ্ছে।

এই বছর ভারতে বেশ কয়েকটি স্থানে বিপর্যয় দেখা গেছে। এখনও অমসয়

বৃষ্টির কারণে কেরল ও তামিলনাড়ুতে এক ডজন মানুষ মারা গেছে এবং

প্রচুর ধ্বংস হয়েছে। বিজ্ঞানীরা বিশ্বাস করেন যে এটি আসলে আবহাওয়াচক্র

পরিবর্তনের শুরু। আগামী দিনগুলিতে আমাদের এর বেশি ক্ষতি হতে পারে,

পুরো ভারতকে।

বিজ্ঞানীরা এই বছরের বৃষ্টিপাতের পদ্ধতিগুলির ভিত্তিতে এই সিদ্ধান্তে

পৌঁছেছেন যে বিশেষত বর্ষার আগমন এবং বৃষ্টির প্রাকৃতিক নিয়ম এখন

পরিবর্তিত হচ্ছে। এ কারণে এবার সারা দেশে অনেক জায়গায় অতিরিক্ত

বৃষ্টিপাতের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। রাজস্থানের মতো মরুভূমিতে বন্যার

বিপর্যয় ছাড়াও গত বছর কেরালায় বিধ্বস্ত হওয়া এর প্রাণবন্ত উদাহরণ।

এই ঘটনাগুলি পর্যবেক্ষণ করা বিজ্ঞানীরাও বিশ্বাস করছেন যে আবহাওয়ার

এই পরিবর্তনের প্রভাব ভারতীয় কৃষিতেও পড়বে। এটি আরও বিপজ্জনক

পরিস্থিতি কারণ ভারতের অর্থনীতি মূলত কৃষিনির্ভর। কিছু কিছু অঞ্চলে,

এই বৃষ্টিপাতের চেয়ে বেশি কৃষি উত্পাদন বৃদ্ধি পাওয়ার পরেও

পোকামাকড়গুলি এখন ফসলের উপর প্রচন্ড আক্রমণে চলেছে। উত্তর

পশ্চিমবঙ্গের কয়েকটি অঞ্চল সহ প্রায় ষাট হাজার হেক্টর জমিতে ধানের

ফসল কাটার পরে কীটের কবলে পড়েছে।

পরিবেশ নষ্ট  শহর ও গ্রামে এক দুর্ষ্প্রভাব

আবহাওয়ার এই পরিবর্তনের প্রভাব গ্রামীণ এবং শহর অঞ্চলে একইভাবে

প্রভাব ফেলছে। মুম্বই ও চেন্নাইয়ের মতো মহানগরীতে অনেক দিন ধরে

জলাবদ্ধতার কারণে জীবন স্থবির হয়ে পড়েছে। এখনও তামিলনাড়ুর

অনেক এলাকায় ভারী বৃষ্টির কারণে স্কুল-কলেজ বন্ধ রাখতে হয়েছে।

অন্যদিকে, গ্রামাঞ্চলে কম-বেশি বৃষ্টিপাত প্রভাব ফেলছে কৃষিতে। কিছু

বৃষ্টিপাত কম এমন কিছু অঞ্চলও রয়েছে যেখানে বৃষ্টি না হওয়ায় গ্রামের

কূপগুলি শুকিয়ে গেছে। স্পষ্টতই, এই পরিবেশ পরিবর্তন লক্ষ লক্ষ

পরিবারকে প্রভাবিত করছে। এই ধারাবাহিকতায় বিজ্ঞানীরাও এই

পরিবর্তনগুলি গুরুতর লক্ষণ হিসাবে বিবেচনা করে বৃষ্টিপাতের শেষে

খারাপ প্রভাবগুলি তুলে ধরেছেন।

এবার মালদা (পশ্চিমবঙ্গ) অঞ্চলে কয়েক শতাধিক হেক্টর জমি হঠাৎ করে

এর মূল অংশটি ভেঙে ধীরে ধীরে বন্যার পনের দিন পরে গঙ্গার অভ্যন্তরে

তলিয়ে গেল। এর ধীর প্রক্রিয়াটির কারণে লোকেরা সেখান থেকে

পালানোর সুযোগ পেয়েছিল।

সাধারণত বন্যার সময় এ জাতীয় ভূমিধস ঘটে। প্রথমবারের মতো দেখা

গেল যে বন্যার জল নেমে যাবার পরে মাটি পুরো শুকিয়ে যাওয়ার পরে

হঠাৎই অভ্যন্তর থেকে ক্ষয় ঘটে।

দেশে ভূগর্ভস্থ জলের স্তরও হ্রাস পাচ্ছে

এই গবেষণার সাথে যুক্ত বিজ্ঞানীরা বিশ্বাস করেন যে ভারতে ভূগর্ভস্থ

জলের সংরক্ষণের উন্নতি করতে দ্রুত পদক্ষেপের অভাবে প্রকৃতির

ভারসাম্য দ্রুত ক্ষয় হচ্ছে।

অন্যদিকে গাছ কাটার কারণে এরই মধ্যে পরিবেশ অবনতি ঘটেছে।

এই কারণে আবহাওয়ার চক্রটিও বদলে যাচ্ছে। পুরো দেশের এই সময়ের

পরিসংখ্যানগুলি দেখায় যে এই বর্ষার সময়, সেপ্টেম্বর মাসে পুরো দেশে

গড় বৃষ্টিপাত ছিল সর্বোচ্চ অন্যদিকে, অক্টোবরে ফসল কাটার মৌসুমে

অনেক অঞ্চল বৃষ্টিপাতের ঝুঁকির মধ্যে থেকে যায়।

যে বিজ্ঞানীরা এই বৈজ্ঞানিক গবেষণামূলক তথ্যগুলির খবর রাখেন,

তারাও এর জন্য দেশের মানুষের লোভকে দায়ী করেন। অর্থের শক্তি দিয়ে,

প্রকৃতির সমস্ত আইনকে অস্বীকার করে তাদের মর্যাদা বাড়ানোর প্রয়াসে

মানুষ এই ভারসাম্যকে এতটাই বিকৃত করে ফেলেছে যে এখন প্রকৃতিও

সমান ভাবে প্রতিশোধ নিচ্ছে। বিজ্ঞানীরা বিশ্বাস করেন যে আবহাওয়ার

এই পরিবর্তনও মানুষের অর্থ সাশ্রয় করবে না। প্রকৃতির এই সর্বনাশ যদি

আরও উগ্র হয়ে ওঠে, তবে প্রত্যেকেই সমানভাবে তার দখলে আসবে। এর

ধ্বংস থেকে কেউ পালাতে সক্ষম হবে না।

[subscribe2]

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ব্রেকিং নিউজ
Bengali English Hindi