1. mistupoddar056@gmail.com : Bangla : Bangla
  2. admin@jatiyokhobor.com : jatiyokhobor :
  3. suhagranalive@gmail.com : Suhag Rana : Suhag Rana
মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ১০:৪৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ধন্যবাদ জানাই  গুগলকে আমাদের প্রচেষ্টাকে সম্মান করার জন্য পৃথিবীর অভ্যন্তরীণ গতিবিধি থেকে নতুন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বিজ্ঞানিরা করোনার ভ্যাকসিনের বিশ্বব্যাপী বিতরণ শুরু দ্রুত ভ্রমণের জন্য মহাকাশে হাই বে পথও আছে ভিটামিন ডি করোনার মৃত্যুর ঝুঁকি হ্রাস করে গবেষণায় জানা গেছে জীবনের অনেক চিহ্ন এখনও মঙ্গল গ্রহের পরিবেশে বিদ্যমান অক্সিজেনের সাহায্যে বয়সকে মাত দিতে চলেছেন বিজ্ঞানিরা এর ডানার বিস্তার ছিল বিশ ফুট ছিলো প্রাগতৈহাসিক যুগে গুরু এবং শনি একে অপরের নিকটে আসছে হত্যা চেষ্টা মামলার আসামী নিশির সাথে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সেক্রেটারি লেখকের অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ রাশিয়ান বিজ্ঞানী কে হত্যা করা হয়েছে করোনার ভ্যাকসিনের সাথে যুক্ত ছিলেন গুদামে সরবরাহিত চিনি জেলা প্রশাসক অফিসে জানানো হবে মানসিক হয়রানি তদন্ত এবং দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া ভারতীয় সেনাবাহিনীর ইউনিফর্ম পরিবর্তন করা হবে চিকিত্সার অভাবে মারা গেল লাপুংয়ের কেওয়াত টালির দরিদ্র শ্রমিক

কর্ণাটক বিধানসভার উপ-নির্বাচন এবার আদালতের রায় আসার পরে হবে

Reporter Name
  • পোষ্ট করেছে : Friday, 27 September, 2019
  • ২১ জন দেখেছেন
  • নির্বাচন কমিশন আজকে সুপ্রিম কোর্টকে এই তথ্য জানিয়েছে
  • উপনির্বাচনের কর্মসূচি আগেই ঘোষণা করা হয়েছিল
  • তিন বিচারপতির বেঞ্চ এই মামলার শুনানি করছেন
  • স্পিকারের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানানো হয়েছে
প্রতিনিধি

নয়াদিল্লি: কর্ণাটক বিধানসভার উপ-নির্বাচন এখন পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এর আগে এই নির্বাচন 21 অক্টোবর অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।

এ প্রসঙ্গে নির্বাচন কমিশন সুপ্রিম কোর্টকে জানিয়েছে যে পূর্ববর্তী সরকার থেকে বিদ্রোহী বিধায়কদের ক্ষেত্রে সিদ্ধান্তের পরেই এ বিষয়ে পরবর্তী কোনও পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

লক্ষণীয় যে জেডিএস ও কংগ্রেস সরকারের পতনও এই বিধায়কদের বিদ্রোহের কারণে হয়েছিল।

তার পর থেকে তারা অযোগ্য কিনা তা নিয়ে আইনী বিতর্ক চলছে।

ইতিমধ্যে, কর্ণাটকের এই আসনগুলিতে বাইপোলগুলি ঘোষণা করা হয়েছিল।

এখন নির্বাচন কমিশনের উপনির্বাচনের তফসিল আদালতের সিদ্ধান্ত অবধি স্থগিত করা হয়েছে।

পূর্বে ঘোষিত কর্মসূচির আওতায় ১৫ টি আসনে এই উপনির্বাচনের আয়োজন করা হয়েছিল।

বিচারপতি এনভি রমনার নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ সুপ্রিম কোর্টের তিন বিচারকের বেঞ্চে এই বিষয়ে শুনানি করছেন।

কর্ণাটক বিধানসভা থেকে অযোগ্য ঘোষণা করা ১ 17 বিধায়কদের ক্ষেত্রে কর্ণাটক বিধানসভার তত্কালীন স্পিকার কে আর রমেশ কুমারের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানানো হয়েছে।

এই আদালতের বেঞ্চে বিচারপতি সঞ্জীব খান্না ও বিচারপতি কৃষ্ণ মুরারিও রয়েছেন।

এই বেঞ্চটি পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছে যে তারা পুরো বিষয়টি বিস্তারিতভাবে শুনলেই সিদ্ধান্ত নেবেন।

এদিকে, নির্বাচন কমিশনের পক্ষে উপস্থিত অ্যাডভোকেট রাকেশ দ্বিবেদী আদালতকে জানিয়েছিলেন যে এই ভিত্তিতে নির্বাচন কমিশন তার পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবে।

অযোগ্য বিধায়ক, কংগ্রেস নেতা সিদ্ধারামাইয়া এবং অন্যান্য আবেদনকারীদের পক্ষে নির্বাচন কমিশনের এই তথ্যের বিষয়ে কোনও প্রতিবাদ জানানো হয়নি।

সকলেই বলেছিলেন যে রায় না হওয়া পর্যন্ত যদি উপনির্বাচনের আয়োজন হয় তবে তাদের আপত্তি নেই।

এখন এই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে 22 অক্টোবর।

এই বিধায়কদের কারণে কর্ণাটকের রাজনৈতিক বিরোধ শুরু হয়েছিল।

কর্ণাটক বিধানসভার পূর্ববর্তী স্পিকারের ফয়সলা

দলের নির্দেশের বিরুদ্ধে যাওয়া এই সমস্ত বিধায়ককে দলীয় লাইন লঙ্ঘনের জন্য কর্ণাটক বিধানসভার তত্কালীন স্পিকারের দ্বারা অযোগ্য ঘোষণা করা হয়েছিল।

এই ১৩ জনের মধ্যে কংগ্রেস, তিন জেডিএস এবং একজন স্বতন্ত্র বিধায়ক।

তাদের আলাদা হওয়ার কারণে জেডিএস-কংগ্রেস জোট সরকার ভেঙে পড়ে।

এর পরে বিএস ইয়েদুরাপ্পা কর্ণাটকে আবার মুখ্যমন্ত্রী হন।

অযোগ্য বিধায়করা যুক্তি দিয়েছিলেন যে সরকার সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারানোর পরে স্পিকারের সিদ্ধান্ত ভুল ছিল এবং এই সিদ্ধান্তের পরে স্পিকার নিজেও পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন।

এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশন ইতিমধ্যে আদালতকে জানিয়েছিল যে অযোগ্য বিধায়কদের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে বিরত রাখা যায় না।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ব্রেকিং নিউজ
Bengali English Hindi